শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪
spot_img

নারায়ণগঞ্জে নামকরা রেস্টুরেন্টগুলোর দখলে ফুটপাত, প্রশাসন নিরব

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ কেউ কথা রাখেনি, কেউ কথা রাখেনা। কারণ কেউই এ শহরকে ভালোবাসে না। রমজান মাস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ শহরের ফুটপাত দখলমুক্ত রাখার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু আইনের প্রয়োগ কতটা কার্যকর করা হয়েছে তা দেখার বিষয়। রমজানে পথচারী ও সাধারণ জনগণের নির্বিঘ্নে চলাচল করার জন্য ফুটপাতে হকারদের বসতে নিষেধাজ্ঞা দেয় প্রশাসন। কিন্তু তারপরও ফুটপাত দখল করে রেখেছে নারায়ণগঞ্জের স্বনামধন্য কিছু হোটেল মালিকেরা। এতে করে জনসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। এ যেন কারো চোখেই পড়ছে না। প্রশাসন একপ্রকার নিশ্চুপ ভূমিকা পালন করছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, নারায়ণগঞ্জ শহরের গুরুত্বপূর্ণ বঙ্গবন্ধুর সড়কের ফুটপাত দখল করে প্যান্ডেল বানিয়ে ইফতার বিক্রি করছে নারায়ণগঞ্জের স্বনামধন্য খাবার হোটেল গুলো। এতে ফুটপাত দিয়ে পথচারীদের চলা প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। যার ফলে জনসাধারণ বাধ্য হয়ে ফুটপাত দিয়ে না চলাচল করে, ব্যবহার করছে মূল সড়ক।

পথচারীরা বলছেন, এতোদিন গরীব হকারেরা ফুটপাত দখল করে রেখেছিলো আর এখন বড়লোক হোটেল গুলো হকারদের মতো দখল করে ব্যবসা করছে। এগুলো কেউ দেখবেনা আর কারো চোখেও পরবে না। তারা তো রাস্তার মধ্যেই সব কিছু করছে। কখন যে কার ওপর গরম তেল পড়ে তা কেউই বলতে পারেনা। গ্যাস সিলিন্ডার রাস্তায় রেখেই চুলা জ্বালানো হচ্ছে এতে যে কোনো দুর্ঘটনা ঘটবেনা তার কোনো গ্যারান্টি দিতে পারবে?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন হকার বলেন, আমরা গরীব হকারেরা যখন ফুটপাতে বসে ব্যবসা করি তখন পুলিশ এসে আমাদের দৌড়ের উপর রাখে। কখনো কখনো তো আবার মালামাল গাড়িতে করে নিয়ে যায়। কিন্তু  এখন হোটেল গুলো যেভাবে রাস্তা দখল করে ইফতার বিক্রি করছে তাতে তো মনে হয় তাদের নিজেদের জায়গায় ব্যবসা করছে। এগুলো পুলিশের চোখে পড়ে না। যত অত্যাচার শুধু আমাদের গরীব হকারদের উপরেই।

চাষাড়া মোড় থেকে বঙ্গবন্ধু সড়কের ২নং রেল গেট পযর্ন্ত ফুটপাত দখল করে ইফতার বিক্রি করা হোটেলগুলোর মধ্যে আছে, সুগন্ধা প্লাস, বনফুল রেস্টুরেন্ট, ফুড গার্ডেন রেস্টুরেন্ট, ফুড ল্যান্ড, মনির রেস্তরাঁ, আর্শীবাদ মিষ্টান্ন ভান্ডার, গ্রামীণ মিষ্টান্ন ভান্ডার, দীপা সুইটমিট, সুইট নেশন, এছাড়া পোর্ট ড্যান্ডি রেস্টুরেন্ট ও আলম কেবিন তো সম্পূর্ণ ফুটপাতে প্যান্ডেল করে টেবিল পেতে ইফতার বিক্রি করছে।

এছাড়া লক্ষ্মী নারায়ণ সুইটমিট, আনন্দ রেস্তরাঁ, বৈশাখী রেস্তোরাঁ, খাজা সুইটমিট, সুমাইয়া বিরিয়ানি হাউস, ফুলকলি সুইট এন্ড পিউর ফুড, স্যান্ড্রা ইফতার বাজার, ঢাকা সুইটস রাস্তায় পথচারীদের চলাচলে বিঘ্ন ঘটিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছি।

তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে, নারায়ণগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান বলেন, আমাদের সব ধরনের নির্দেশনা দেওয়া আছে ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতে। আমরা সেইভাবেই কাজ করছি।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়