সোমবার, জুলাই ১৫, ২০২৪
spot_img

সোনারগাঁ উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন-মুক্ত ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

সংবাদ১৬.কমঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলাকে শতভাগ ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (৯ আগষ্ট ) বেলা ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১২৩ টি উপজেলার সঙ্গে সোনারগাঁ উপজেলাকে আনুষ্ঠানিক ভাবে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে নির্বাহী কর্মকর্তা রেজওয়ান উল ইসলামের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি) শাফিয়া আক্তার শিমু, সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ ইব্রাহীম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সাবরিনা হক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার ফেন্সি ও সোনারগাঁ থানার ওসি (তদন্ত) আহসান উল্লাহ।

এছাড়াও উপস্থিতি ছিলেন, উপজেলা প্রকৌশলী আরজুরুল হক, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল জব্বার, কানুনগো ফয়েজুল ইসলাম, প্রধান সহকারী দিপাল চন্দ্র দেবনাথ, নামজারী সহকারী ফৌজিয়া আক্তার, নাজির কাম ক্যাশিয়ার নুর হোসেন, সার্বেয়ার মহসিন, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ইয়াসুনুল হাবীব, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইফুল ইসলাম প্রধান, সোনারগাঁ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন কর্মকর্তা সুজন কুমার হালদার, মৎস্য কর্মকর্তা জেসমিন আক্তার, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা, ডেভেলপমেন্ট ফ্যাসিলিটেটর শাহানারা আঁচল, এসিসেন্ট প্রোগ্রামার ফাতেমা তুজ জান্নাত, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আফরোজা সুলতানা, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী  মোঃ  মিজানুর রহমান, প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মঞ্জুরুল হাসান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মিজানুর রহমান, খাদ্য কর্মকর্তা কবির হোসেন ও ইসলামি ফাউন্ডেশনের সুপার ভাইজার আনোয়ারা বেগম প্রমূখ।

এসময় নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি ) শাফিয়া আক্তার শিমু বলেন, আমাদের জানামতে সোনারগাঁ উপজেলায় স্থায়ী কোনো বাসিন্দা ভূমি ও গৃহহীন নেই। তাই এ উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এর পরেও যদি কেউ ভূমিহীন ও গৃহহীন হিসেবে আমাদের কাছে আবেদন করেন তাদের জন্য ঘরের ব্যবস্থা করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজওয়ান উল ইসলাম জানান, ইতিমধ্যে উপজেলার ৩ টি ইউনিয়নের ২৪৭ টি ভুমি ও গৃহহীন পরিবারকে ১ম ২য়, ৩য় ও চতুর্থ ধাপে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ২ শতাংশ জমিসহ গৃহ প্রদান করা হয়েছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে ভুমি ও গৃহহীনদের আবেদন সংগ্রহ করে তাদের জমি ও ঘর প্রদান করা হয়। এরপরও ভুমি ও গৃহহীন কাউকে পাওয়া গেলে তাদের বরাদ্ধ প্রদান করা হবে।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়