মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
spot_img

ভেজাইল্লা সুলতান ও মিঠুসহ আসামীদের গ্রেফতারের দাবীতে এসপির কাছে অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মামলার আসামিসহ সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকিতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন ফরাজীকান্দার শয্যাশায়ী আহত রাকিবুল হাসান অঞ্জন। মামলা উঠিয়ে নেয়ার চাপে পড়ে আতংকে শংকিত হয়ে ভেজাইল্লা সুলতান মাহমুদকে এজাহারভুক্ত আসামি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা এবং মামলার আসামি মিঠু সহ অন্যান্য আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে আহত অঞ্জন।

লিখিত অভিযোগে জানা যায়, গত ৯ জুলাই নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩২৬/৩০৭/৩৭৯/৫০৬/১১৪ ধারায় পেনাল কোড ১৮৬০ অনুযায়ী অঞ্জনের পিতা আবুল কালাম একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০৯। উক্ত মামলাটি উঠিয়ে নেওয়ার জন্য এজাহারভুক্ত আসামী সহ জনৈক সুলতান মাহমুদ (৫৩), পিতা-চাঁন মিয়া, সাং-৫৩/৩ আবেদীন ভিলা, চাষাড়া, নারায়ণগঞ্জ সহ আরো কয়েকজন অজ্ঞাত নামা খারাপ প্রকৃতির লোক মামলার বাদী আবুল কালাম এবং আমাকে সহ আমার পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ভাবে জীবননাশের হুমকী দিচ্ছে।

মামলার এজাহারভুক্ত ৪নং আসামী মিঠুর (৩২) পক্ষ অবলম্বন করে সোনারগাঁ থানার হেফাজত মামলার এজাহারভুক্ত আসামী সুলতান মাহমুদ ভেজাল প্রতিরোধ ফাউন্ডেশন নারায়ণগঞ্জ কমিটির পক্ষে বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে চিঠি প্রেরণ করে মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। উল্লেখ্য যে, মামলার ৫নং অজ্ঞাত নামা আসামীর মধ্যে সুলতান মাহমুদ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে আশংকা বোধ করেন আহত অঞ্জন।

সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগসহ প্রশাসনের কাছে বিস্তর অভিযোগ রয়েছে। ভেজাল প্রতিরোধ ফাউন্ডেশনের ইনভেস্টিগেশন অফিসার পরিচয়দানকারী আসামী মিঠুর নাম মামলা থেকে বাদ না দিলে ভেজাইল্যা সুলতান মাহমুদ আহত অঞ্জনকে ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন মামলা মোকদ্দমার ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। এছাড়াও সুলতান মাহমুদের পরিচালনাধীন সরকার অনুমোদনবিহীন সময়ের চিন্তা ডটকম ও সময়ের চিন্তা টিভি নামক ভুয়া অনলাইনে অঞ্জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশন করে মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার চেষ্টা সহ মান সম্মান ক্ষুন্ন করে। বর্তমানে অঞ্জন ঘটনার পর থেকে সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীর হামলায় আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে। এরই মধ্যে সুলতান মাহমুদ মিঠুর নাম মামলা থেকে বাদ দেওয়ার জন্য বিভিন্ন প্রকারের চাপ সৃষ্টি করছে। তাই এই মামলায় ভেজাইল্যা সুলতান ওরফে সুলতান মাহমুদ জড়িত থাকতে পারে বলে মনে করেন অঞ্জন।
উল্লেখ্য যে, সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে সোনারগা থানার মামলা নং-১৩, তাং-০৯/০৪/২০২১, ধারাঃ ২০০৯ সালের সন্ত্রাস বিরোধী (সংশোধন-২০১৩) আইনে মামলাটি চলমান রয়েছে। বর্তমানে ভুক্তভোগীগণ সুলতান মাহমুদ,মিঠু সহ অন্যান্য এজাহারভুক্ত আসামীদের অব্যাহত হুমকীতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন বলে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন।

অতএব উপরোক্ত বিষয়ে প্রতি সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে সুলতান মাহমুদকে অত্র মামলায় এজাহার ভুক্ত আসামী হিসাবে অন্তর্ভুক্ত করতঃ এবং গ্রেফতারসহ অন্যান্য বিবাদীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের কাছে ৩১ জুলাই লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয় এবং নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় অফিসার ইনচার্জ বরাবর অভিযোগের অনুলিপি দেয়া হয়। এব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগী কামনা করেন মামলার বাদী ও ভুক্তভোগী আহতব্যক্তি।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়