মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
spot_img

মাদকের বিরুদ্ধে গণজাগরণ সৃষ্টি করতে হবে: ডিসি মাহমুদুল হক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সদ্য যোগদানকারী নারায়ণগঞ্জে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারের বিরুদ্ধে সকল জাতি ও রাষ্ট্রকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে এগিয়ে আসতে হবে। মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলে গণজাগরণ সৃষ্টি করতে হবে।

“মানুষই মুখ্য,মাদককে না বলুন, শক্তিশালী প্রতিরোধ গড়ে তুলুন” প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে রোববার ৩০ জুলাই মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি আরও বলেন, বাবা মাকে খুব সচেতন হতে হবে এবং ছেলেমেয়েদের বই পড়ার প্রতি মনোযোগী হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।  মাদকের বিরুদ্ধে গনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে এই নারায়ণগঞ্জে গ্রন্থাগার বাড়িয়ে সাহিত্য আন্দোলন গড়ে তুলবো।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে মাদক বিরোধী দিবসের উদ্বোধন করে এক বর্নাঢ্য র‌্যালী বের হয়। পরবর্তীতে আলোচনা সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাকিব আল রাব্বির সঞ্চালনায় মাদক বিরোধী দিবসে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোহাম্মদ মামুন।

তিনি বলেন, সমাজের সর্বস্তরের জনসাধারণকে মাদকের ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে গণসচেতনতা বৃদ্ধি করে মাদকের বিরুদ্ধে শক্তিশালী প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জের সাহসী পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল। তিনি বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে কোন ছাড় নয়। জিরো টলারেন্স হিসেবে পুলিশ, বিজিবি, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর  সহ প্রশাসন আন্তরিক ভাবে কাজ করছে। মাদকের বিরুদ্ধে পারিবারিক সচেতনতা বৃদ্ধি ও মাদক নির্মূল এবং নিয়ন্ত্রণে সকলের সহযোগীতা প্রয়োজন। এছাড়াও এনজিওদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মানব কল্যাণ পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ মান্নান ভূঁইয়া।

অনুষ্ঠানে শিশু কিশোরদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার দেওয়া হয় এবং মাদব বিরোধী কার্যক্রমে বিশেষ ভূমিকা রাখায় সংগঠক হিসাবে এম এ মান্নান ভূঁইয়াকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেল সুপার মোঃ মোকাম্মেল হোসেন, জেলা তথ্য অফিসার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মাহাবুবুল আলম, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রসিকিউটর সৈকত দত্ত সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মন্ডলী ও বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধিগণ।

এছাড়াও  নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন নিরাময় কেন্দ্রগুলোর প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন। পরিশেষে উপস্থিত সকলেই মাদককে না বলেন।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়