মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
spot_img

সন্ত্রাসী, খুনি ও চাঁদাবাজ নিয়ে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করলো বিরু

সংবাদ১৬.কমঃ নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়েও বিতর্কে জড়ালেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ডা. আবু জাফর চৌধূরি বীরু। মেঘনা নদীতে চাঁদাবাজী, হত্যা, ভূমিদস্যূতাসহ একাধিক মামলার আসামী পলিথিন জাকিরকে সাথে নিয়ে প্রকাশ্যে দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শোডাউন করেছেন তিনি। এঘটনায় সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের তৃনমূল নেতাকর্মী সহ স্যোস্যাল মিডিয়া ফেসবুকে বইছে নিন্দার ঝর।

একাধিক মামলার আসামী পলিথিন জাকিরকে সাথে নিয়ে এভাবে শোডাউন করায় সমালোচনা চলছে দলীয় নেতাকর্মী ও স্থানীয়দের মধ্যেও।

তারা বলছেন, জাতীয় নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী একজন নেতার পাশে একাধিক হত্যা মামলার আসামী ও একজন চাঁদাবাজ কিভাবে ঘুরাফেরা করে? তাকে নিয়ে শোডাউন করা কোন ভাবে মেনে নেয়া যায় না।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের কান্দারগাঁও গ্রামের মমতাজ উদ্দিনের ছেলে জাকির হোসেন একজন ভূমিদস্যু ও নৌ-চাঁদাবাজ। সে এলাকার নিরীহ মানুষের জমি দখল করে নিঃস্ব করে দিয়েছে। তাছাড়া এই সন্ত্রাসী জাকির মেঘনা নদীতে চাঁদাবাজির নেতৃত্ব দিয়ে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে নৌ-শ্রমিকদের পিটিয়ে আহত করছে। তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বৈদ্যারবাজর, মোগরাপাড়া, সোনারগাঁ পৌরসভা ও পিরোজপুর ইউনিয়নের ৫০/৬০ টি গ্রামের মানুষ।

২০১২ সালে একটি কোম্পানির বালু ভরাটকে কেন্দ্র করে কান্দারগাঁও গ্রামের যুবলীগ নেতা রিপনকে কুপিয়ে হত্যা করে তার সন্ত্রাসী বাহিনী  সেই হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী জাকির হোসেন ওরফে পলিথিন জাকির। নিহতের বাবা মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আলী বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এদিকে গত ৯ মে পলিথিন জাকিরের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ-হয়রানী বন্ধ ও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করেন পিরোজপুর ইউনিয়নের সকল সদস্যবৃন্দ। এখন পযর্ন্ত প্রশাসনের থেকেও তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। এ সুযোগে প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন হকার থেকে কোটিপতি পলিথিন জাকির।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়