শুক্রবার, মার্চ ১, ২০২৪
spot_img

লোডশেডিং ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব এবিএম সিরাজুল মামুন বলেছেন, অবিলম্বে পদত্যাগ করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন দিতে হবে। অতীতের মত সরকারের কলাকৌশল আর তালবাহানার নির্বাচন জাতি আর দেখতে চায় না। সরকার যত উন্নয়নের কথা বলে ততই দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে।

দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির উন্নয়ন জনগণ চায় না। বিদ্যুত বিল জনগণ পরিশোধ করলেও সরকার নাকি টাকার অভাবে বিদ্যুৎ দিতে পারছে না। এটা প্রহসন ছাড়া আর কিছু না। সরকারের ছত্রছায়ায় দুর্নীতিবাজরা দুর্নীতি করে দেশকে দেউলিয়া বানিয়ে দিয়েছে। আমদানি নির্ভর করে বিদ্যুতখাতকে সরকার ধ্বংস করে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, এদেশের বিচার ব্যবস্থা সরকার কুক্ষিগত করে নিয়েছে। এ সরকারের মত চোর বিশ্বে আর কোনো সরকার নেই। দেশের এই ক্রান্তিকালে জাতির মুক্তির জন্য খেলাফত মজলিস ৮ দফা ঘোষণা করেছে। এই ৮ দফা দাবি মানতে হবে। ধর্মীয় শিক্ষা সংকোচন নীতি বন্ধ করতে হবে। গ্রেফতারকৃত আলেম উলামা ও রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে ও সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে।

সারাদেশে বিদ্যুতের লোডশেডিং ও দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে খেলাফত মজলিসের কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ৯ জুন শুক্রবার বাদ আছর নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর শাখার উদ্যোগে মহানগর সভাপতি ডাঃ শরীফ মোহাম্মদ মোসাদ্দেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মিছিল পরবর্তী এক বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতী শেখ শাব্বীর আহমাদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের জেলা সভাপতি হাফেজ মাওলানা আহমদ আলী ও মহানগর সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস আহমদ।

এসময় নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের নারায়ণগঞ্জ জেলা সহ-সভাপতি মাওলানা গোলাম রব্বানী, মহানগর সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুল ওয়াদুদ, মহানগর সহ-সাধারণ সম্পাদক ও সদর থানা সভাপতি হাফেজ কবির হোসাইন, মহানগর সহ-সাধারণ সম্পাদক ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা সভাপতি নুর মোহাম্মদ খান, জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক মুফতী আব্দুল গনী, জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক ও ফতুল্লা থানা সভাপতি কামরুল হাসান পায়েল, মহানগর সহ-সাধারণ সম্পাদক ও সদর থানার সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হাফেজ মুহাম্মাদ আওলাদ, মহানগর সহ-সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ শরীফ মিয়া, মহানগর সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও বন্দর থানা পশ্চিমের সভাপতি মাওলানা ফরিদুজ্জামান, ইসলামী যুব মজলিসের মহানগর আহবায়ক প্রভাষক মাইদুল ইসলাম, সদস্য সচিব রিফাত আহমদ সাজিদ, ছাত্র মজলিসের মহানগর প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মাদ আনাস, প্রমুখ।

প্রধান বক্তা হিসেবে নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি হাফেজ মাওলানা আহমদ আলী বলেন, সরকার মানুষকে ১০ টাকার চাল খাওয়াবে ও ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিবে বললেও দিতে পারে নাই। বিদ্যুতের লাইন পৌছালেও বিদ্যুৎ পৌঁছেনি। সরকার জনদূর্ভোগের কথা স্বীকারই করছে না। অথচ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও লোডশেডিংয়ের কারণে সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত। অবিলম্বে সরকারকে পদত্যাগ করে নির্বাচনকালীন দলনিরপেক্ষ সরকারের মাধ্যমে নির্বাচন দিতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে চাষাঢ়া চত্বর ঘুরে ডিআইটি গিয়ে সমাবেশ শেষে দোয়ার মাধ্যমে সমাপ্ত হয় এবং আগামী ১৬ জুন শুক্রবার থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচী বাস্তবায়নের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান বক্তারা।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়