রবিবার, মে ১৯, ২০২৪
spot_img

হাতে নাক ফুল, আংটি ও শাড়ি কাপড় তুলে দেয় ইভটিজার, প্রতিবাদে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বারদী ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও পরিচালনা কমিটির সদস্যরা ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদে মানববন্ধন, বিক্ষোভ কর্মসূচী ও স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।

সোমবার দুপুরে গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের সামনে এ মানবন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করা হয়। পরে গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. আহসান হাবীব সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আহসান হাবিব, সহকারী শিক্ষক দেওয়ান সামসুর রহমান, জয়নাল আবেদীন, ওবায়দুল হক, ইলিয়াস মিয়া, পরিচালনা কমিটির সদস্য মুকুল মুন্সি, জাহাঙ্গীর আলম, নুরুল ইসলাম, দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী সিনহা আক্তার কনা, সুমনা আক্তার, আরিফা আক্তার ও মনি আক্তার প্রমূখ অংশ নেয়।

জানা যায়, উপজেলার বারদী ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের সামনে দীর্ঘদিন ধরে বখাটেরা মেয়ে শিক্ষার্থীদের উক্ত্যক্তসহ বিভিন্নভাবে মেয়েদের হয়রানী ও লাঞ্ছিত করে আসছে। ফলে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। বিদ্যালয়ে মেয়ে শিক্ষার্থীরা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে।

স্থানীয় জন প্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অবগত হলেও কোন প্রকার প্রতিকার পাওয়া যাচ্ছে না। মেয়েদের স্কুলে পাঠিয়ে অভিভাবকদের উৎকন্ঠায় থাকতে হয়। কোন প্রকার প্রতিকার না পেয়ে শিক্ষার্থী, ব্যবস্থাপনা কমিটি ও শিক্ষকরা সোমবার স্কুলের সামনে মানবন্ধন কর্মসূচী পালন করে। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষোভ মিছিলটি গোয়ালপাড়া, নাকুরিয়াহাটি, পাইকপাড়া এলাকা প্রদক্ষিণ করে।

দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী সিনহা আক্তার কনা জানায়, বখাটেদের উৎপাত দিন দিন বেড়েই চলছে। এ স্কুলের সামনে ও রাস্তার মধ্যে বখাটেরা বসে থাকে। তারা আমাদের চলার পথে খারাপ ইঙ্গিত দেয়। প্রতিদিন স্কুল ও আশপাশের রাস্তার মধ্যে পুলিশের উপস্থিতি কামনা করি। আমরা ইভটিজিং মুক্ত শিক্ষাঙ্গন চাই।

গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের সহকারী শিক্ষক দেওয়ান সামসুর রহমান বলেন, বখাটেদের অত্যাচার চরম পর্যায়ে পৌছে গেছে। গত দু,মাস আগে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে জোরপূর্বক বিয়ে করে বখাটেরা। গত বৃহস্পতিবারে এক শিক্ষার্থীকে জোরপূর্বক বিয়ে করতে রাস্তায় গতিরোধ করে নাক ফুল, হাতের আংটি ও শাড়ি কাপড় হাতে তুলে দেয়। বিষয়টি প্রশাসনিকভাবে নিয়ন্ত্রন না করতে পারলে আমাদের স্কুলে মেয়েদের উপস্থিতি কমে যাবে।

গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ আহসান হাবীব বলেন, ইভটিজার ও বখাটেদের উৎপাতে শিক্ষার্থীরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। আমরা এখন নিরুপায় হয়ে পড়েছি। স্কুল শুরু হওয়ার আগে ও পরে বখাটেরা স্কুলের আশপাশে অবস্থান নিয়ে মেয়েদের উক্ত্যক্ত করে। প্রতিবাদ করলেই শিক্ষকদের ওপর চাপ আসে। প্রশাসনের দৃষ্টি দিতে ইউএনওর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছি।

গোয়ালপাড়া হাই স্কুলের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান লায়ন মাহবুবুর রহমান বাবুল বলেন, ইভটিজিং, মাদক ব্যবসা ও অপরাধমূলক কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রন করার উদ্যোগ নেওয়া হলে এলাকার কিছু প্রভাবশালী অপরাধীরা পক্ষ নিয়ে নেয়। ফলে অপরাধমূলক কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব হয় না। এ বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করি।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রেজওয়ান উল ইসলাম বলেন, ইভটিজিংয়ের বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। ওই এলাকার বখাটেদের তালিকা তৈরি করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়