শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
spot_img

সোনারগাঁয়ে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ

সংবাদ১৬.কমঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মোঃ ফজলুল হকের বিরুদ্ধে চরভূলুয়া গ্রামে নিয়ম নীতি তোয়াক্কা না করে রাস্তা নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে এলাকায় নিজস্ব সন্ত্রাসী বাহিনী তৈরি করে বিভিন্ন অপরাধ মুলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা ও ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করার অভিযোগ রয়েছে।

জোরপূর্বক কৃষকের ফসলী জমির মধ্যভাগ দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করায় ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করায় ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে স্থানীয় চর ভূলুয়া গ্রামের গোলাম হাফিজ নাসিম নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দেওয়া অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ ফজলুল হক তার ব্যক্তিগত রাস্তা ব্যবহার করার জন্য সরকারী অর্থের ব্যয়ে ওই এলাকার নিরীহ কৃষকের ফসলী জমির ওপর দিয়ে জোরপূর্বক মাটির রাস্তা নির্মাণ করার চেষ্টা চালায়।

এব্যাপারে অন্যান্য কৃষকদের নিয়ে গোলাম হাফিজ নাসিম রাস্তা নির্মাণে বাধা দিলে ইউপি সদস্য তার লোকজন নিয়ে তাকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। এতে করে ওই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে ওই এলাকায় সংঘর্ষের আশংকায় নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

অভিযোগে গোলাম হাফিজ নাসিম আরও উল্লেখ করেন, ইউপি সদস্য ফজলুল হক একজন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন করে সার্বক্ষণিক ওই বাহিনী দিয়ে এলাকায় সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, দাঙ্গা-হাঙ্গামা লাগিয়ে এলাকার মানুষকে আতংকের মধ্যে রাখে। সাম্প্রতি ওই ইউপি সদস্য ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী সনমান্দীর চরভূলুয়া গ্রাম এলাকায় জোরপূর্বক রাস্তা নির্মাণ করার কারণে ওই এলাকার অনেক কৃষকের ফসলী জমি ও ফসল নষ্ট হয়ে যায়। এছাড়াও রাস্তার কারণে এখানে পানির অভাব দেখা দেয়। ফলে পানির অভাবে অনেক কৃষক ফসল ফলাতে পারছে না। রাস্তাটি পুরোপুরি নির্মাণ করা হলে এলাকাবাসীর তেমন কোন উপকারে আসবে না। শুধু মাত্র তার ব্যক্তিগত উপকারের জন্য এ রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে।

গোলাম হাফিজ নাসিম বলেন, ইউপি সদস্য ফজলুল হকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে এলাকাবাসী স্বোচ্চার হয়েছেন। তার নিজস্ব বাহিনীর মাধ্যমে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করেন। তার বিরুদ্ধে আদালতে একটি মোকদ্দমা দায়ের করেছি। সেই মোকদ্দমা দায়ের করায় সে আমার পেছনে লেগেছে। আমার কাছ থেকে সে তার বাহিনী মোটা অংকের চাঁদা দাবী করছে।

এব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য মো: ফজলুল হকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, জনগণের সুবিধার্থে এ রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। নাসিমের জমির কিছু অংশ এ রাস্তায় ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে আমার বিরুদ্ধে অপ-প্রচার করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমার কোন সন্ত্রাসী বাহিনী নেই। জনগনের ভালো হবে এমন সব কাজ আমি করে যাচ্ছি। একটি মসজিদের কর্মকান্ড নিয়ে বিরোধ হওয়ায় আমার বিরুদ্ধে ২টি মামলা ও ডিসির কাছে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে এ রাস্তা ইউএনও ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা পরিদর্শন করেছেন।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়