সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২৩
spot_img

বন্দরে স্ত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় স্বামী গ্রেফতার

বন্দর সংবাদদাতাঃ নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় স্বামী মোঃ খাজা আলম (৩৮) কে গ্রেফতার করেছে কামতাল তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কামতাল তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আল ইসলামের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে লাঙ্গলবন্দ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মোঃ খাজা আলম বন্দর উপজেলার যুগীপাড়া গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে।

কামতাল তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আল ইসলাম জানান, গ্রেফতারকৃত মোঃ খাজা আলমের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার ও সহায়তা করার অভিযোগে গত ৯ এপ্রিল ২০২৩ ইং তারিখে হাজী মোঃ বশির উল্লাহ বাদি হয়ে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করেন। যাহার নং-২২। ওই মামলার প্রধান আসামি মোঃ খাজা আলমকে উপজেলার লাঙ্গলবন্দ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে পারিবারিকভাবে বন্দর থানার যুগীপাড়া গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে খাজা আলমের সঙ্গে বিয়ে হয় সোনারগাঁ উপজেলার নানাখী এলাকার হাজী বশির উল্লাহ মেয়ের ঘরের নাতনী নাফিছা আক্তার। তাদের সাংসারিক জীবনে ১ ছেলে ১ মেয়ে ও স্বামী-স্ত্রী বন্দর উপজেলার যুগীপাড়া গ্রামে বসবাস করতেন। কারণে-অকারণে স্ত্রীকে মারধর করতেন স্বামী খাজা আলমসহ অন্যান আসামিরা।

২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ইং তারিখের সন্ধ্যায় নিজের শয়ন কক্ষে স্বামীর প্ররোচনায় ও অন্যান্য আসামিদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে নাফিছা আক্তার আত্মহত্যা করেন। এ ঘটনায় গত ৯ এপ্রিল হাজী মোঃ বশির উল্লাহ বাদি হয়ে তার নাতনীর আত্মহত্যায় প্ররোচনা ও সহায়তার দায়ে নাফিছা আক্তারের স্বামী এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যসহ ৫ জনকে আসামি করে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করেন।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়