বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪
spot_img

করোনা যোদ্ধার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে অপপ্রচার, প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

সংবাদ১৬.কমঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে এক প্রবাসীর কাছ থেকে পাওনা টাকা আদায়ে সহযোগিতা করায় সানাউল্লাহ নামের এক করোনা যোদ্ধার বিরুদ্ধে অপপ্রচারের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের মামরকপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। করোনা যোদ্ধার নামে স্থানীয় কয়েকটি পত্রিকায় চাঁদা না পেয়ে রাস্তা কেটে নেওয়ার অভিযোগ তুলে অপ-প্রচার চালানো হয়।

৪ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে উদ্ভবগঞ্জ এলাকায় সামাজিক সংগঠন ষোলোআনা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে লিখিত বক্তব্যে অপ-প্রচারের বিষয়টি তুলে ধরেন ভুক্তভোগী করোনা যোদ্ধা ছানাউল্লাহ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, প্রবাসী পাওনাদার হাবিবুর রহমান, নাট্য ব্যক্তিত্ব জসিম উদ্দীন, মোঃ সোহাগ, রহমত আলী, কবির হোসেন, ইউসুফ মিয়া, আমানউল্লাহ, মোঃ জিলানী ও দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে সানাউল্লাহ বেপারী বলেন, তিনি ২০১০ সাল থেকে সামাজিকভাবে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করে আসছেন। করোনা পরিস্থিতি শুরু হওয়ার পর থেকে তিনি টিম গঠন করে ঘরবন্দী মানুষের কাছে খাবার পৌঁছে দেওয়া, চিকিৎসা ও করোনায় মৃত ব্যক্তিদের দাফন-কাফনসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এসব কাজের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা।

সম্প্রতি বৈদ্যোরবাজার ইউনিয়নের মামরকপুর গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী হাবিবুর রহমান একটি বাড়ি নির্মাণ করছেন। বাড়ির ঠিকাদার কাজে ভুল করছেন এমন অজুহাতে প্রবাসী ঠিকাদারকে চুক্তিবদ্ধ কাজ থেকে বের করে দিয়ে তার কাজের ১০ লাখ টাকা পরিশোধে তালবাহানা শুরু করেন।

গত দুই বছর ধরে এ টাকা পরিশোধ করতে গড়িমসি করতে থাকে। গত সপ্তাহে ঠিকাদার পাওনা টাকার জন্য প্রবাসী হাবিবুর রহমানসহ তিনজনকে অভিযুক্ত করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এ কাজে সহযোগিতা করেন করোনা যোদ্ধা সানাউল্লাহ বেপারী। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রবাসীর বোন শাহিনা বেগম তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ তুলেন এবং হুমকি দেয়। এ ঘটনায় সানাউল্লাহ বেপারী সোনারগাঁ থানায় একটি সাধারণ ডায়রীও করেন। সাধারণ ডায়রীর পর পুলিশ তদন্ত করার ভয়ে তার বিরুদ্ধে চাঁদার দাবিতে রাস্তা কাটার অভিযোগ তুলে অপ-প্রচার চালানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সানাউল্লাহ বেপারী আরো বলেন, হাবিবুর রহমান প্রবাসে থেকে হুন্ডির ব্যবসা করে সরকারি কর ফাঁকি দিয়ে আলিশান বাড়ি নির্মাণ করছেন। তিনি বাড়ি নির্মাণ করতে গিয়ে রাজ মিস্ত্রি, ঠিকাদার, টাইলস ও রড সিমেন্টের পাওনা টাকা দিতে নারাজ। পাওনা টাকা চাইতে গেলে চাঁদাবাজি মামলার হুমকি দেওয়া হয়।

অভিযুক্ত প্রবাসী হাবিবুর রহমান দেশে না থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে তার বোন শাহিনা বেগম বলেন, সানাউল্লাহর অভিযোগ সত্য নয়।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়