শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪
spot_img

বন্দরে মামা-ভাগিনাকে কুপিয়ে জখম, নগদ টাকা লুট, থানায় মামলা

সংবাদ১৬.কমঃ নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় নুরেরবাগ এলাকার বাদল মিয়া ওরফে বাদলার ছেলে মোঃ রাজু মিয়ার নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী বাহিনী আব্দুর রহিম (৩২) ও জাহিদ হোসেন (২৪) নামের দুই পোল্ট্রি ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে। এঘটনায় আহত আব্দুর রহিমের মা বাদী হয়ে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আহত আব্দুর রহিম ও জাহিদ হোসেন সম্পর্কে মামা-ভাগিনা।

উল্লেখ্য, গত সোমবার দুপুর ১২ টার দিকে বন্দর জামাই পাড়া এলাকার আলেয়ার ছেলে জাহিদ হোসেন মুরগী কেনার জন্য ভাগিনা রহিমকে নিয়ে রিক্সা যোগে খামারে যাওয়ার পথে সন্ত্রাসী রাজু ওরফে স্ট্যান্ড রাজুর নেতৃত্বে রিয়াদ, রাকিব, শেখ সিফাত, আল-আমিন, নিরব, মেরাজ, সানি, বাইতুল, মোকলেস, রাব্বি, নাসির, সায়েম ও জালাল উদ্দিন জাল্লুসহ একদল সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্র চাপাতি, হাতুড়ি রামদা ও ছেনা দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে। এসময় হামলাকারীরা তাদের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেয় এবং তাদের কাছে থাকা ৭০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

এলাকাবাসী আহত রহিম ও জাহিদকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি দেখলে চিকিৎসক তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। সেখানে চিকিৎসা নেয়ার পর তারা বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ চাষাড়া স্টার লাইফ নামের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সরেজমিনে স্টার লাইফ হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, জাহিদের অবস্থা আশংকা জনক। এসময় জাহিদ বলেন, আমাদের সাথে তাদের কোন শত্রুতা ছিলোনা। সন্ত্রাসী রাজু ও তার বাহিনী এলাকায় মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। তাদের বিরুদ্ধে আমরা কখনো কথাও বলিনি। আমরা ব্যবসার কাজে বের হয়েছি, আমাদের কাছে থাকা নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার জন্যই তারা এই হামলা চালিয়েছে।

বন্দর থানার ওসি আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় মামলা হয়েছে, আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়