সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪
spot_img

জোরপূর্বক সম্পত্তি দখল ও প্রাণনাশে হুমকির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বন্দরের মালিবাগে মৃত লুদাই মোল্লার ছেলে মৃত আলী নূর মোল্লা, আলী হোসেন মোল্লা ও আলী আহমেদ মোল্লার পৈত্রিক ও ক্রয়কৃত সম্পত্তি ভুমিদস্যুরা জবর দখলের পায়তারা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত সোমবার (৬ মার্চ) একই এলাকার মোছলেম মিয়ার ছেলে মোস্তফা, তরিকুল, ইয়ানবী ও তরিকুলের স্ত্রী মুক্তা ওরফে টুম্পা ভুমিদস্যুরা তাদের বাড়ি থেকে উচ্ছেদসহ তাদের সম্পত্তি জবর দখলের হুমকি দেয়। দীর্ঘদিন ধরেই তাদের সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টা করছে টুম্পা গং।
আলী হোসেন মোল্লা এর আগে তাদের সম্পত্তি রক্ষার জন্য আদালতে দেওয়ানী মামলা করেন। মামলা করায় ভুমিদস্যুরা তাদেরকে উচ্ছেদ ও হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় গত ৪ মার্চ বন্দর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। এছাড়াও আলী হোসেন মোল্লা তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপারের দফতরে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে অসুস্থ্য আলী হোসেন মোল্লা বলেন, তিনি সরকারি অফিসার ছিলেন। চাকুরী থেকে অবসরে যাওয়ার কয়েক বছর পর স্ট্রোক করে প্যারালাইসিস হয়ে অসহায় জীবন যাপন করছেন। আর এ সুযোগে তার পৈত্রিক সম্পত্তি ও তার কষ্টার্জিত অর্থে ক্রয়কৃত সম্পত্তি একই এলাকার ভুমিদস্যুরা গ্রাস করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

মৃত আলী নূর মোল্লার মেয়ে শান্তনা আক্তার বলেন, গত ১৬ ই ফেব্রুয়ারী বিবাদীরা আমাদের জায়গা মাপের সময় লোকাল ভূমি জরিপের পরিমাণ ও কলমি নকশা তৈরি করে এবং এই নকশাটিতে দাগ নং সিএ-৫৮/ ৬৫৪, এস এ ৫৮/ ৬৫৪, আর এস -১১৮ এর দাগ নং, সি এস ৫৮, এস এ ৫৮, আর এস ১১৭ তে ১৪ ফুট হিসাব ভুল করেছে। উক্ত নকশা ভুলের কারনে বিবাদীরা আর এস ১১৭ দাগে আমাদের জায়গা দখল করার চেষ্টা করেছে। পরবর্তীতে আরেকটি মাপ হয়েছে ২০ ফেব্রুয়ার, যে মাপ সঠিক হয় কিন্তু বিল্লাল মেম্বার কোন নকশা তৈরি করতে দেয়নি ও ২ দিনের সময় চেয়ে এখন পর্যন্ত আমাদের কোন ফয়সালা দেয়নি।

আমরা এ বিষয়ে চেয়ারম্যান সাহেবের কাছে গেলে উনি বলছেন স্পটে এসে সঠিক সমাধান দিবেন। কিন্তু টুম্পা গং চেয়ারম্যান এর সাথে বসবে না বলে জানিয়েছে বিল্লাল মেম্বারের কাছে। এরপর টুম্পা গং আমাদের জায়গা আবারও দখল করার চেষ্টা করলে আমরা তাদের বাধা দিতে গেলে আমাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে ও ভয়ভীতি সহ প্রাননাশের হুমকি প্রদান করে। এতে আমি ও আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি তাই আমরা প্রশাসনের কাছে আইনানুগ সহযোগিতা কামনা করছি।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়