শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪
spot_img

হাত পা বেঁধে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুই বাড়িতে ডাকাতি, আহত ৬

সংবাদ সিক্সটিনঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বাড়ির সবাইকে হাত পা বেঁধে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুই বাড়িতে দূর্ধর্ষ ডাকাতি সংগঠিত হয়েছে। গত সোমবার রাত দেড়টার দিকে উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বশিরগাঁও গ্রামে ও আড়াইটার দিকে নোয়াগাঁও ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

ডাকাতদল নগদ টাকা-পয়সা, স্বর্ণলংকার ও মোবাইল সেটসহ প্রায় ২২ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এসময় বাধা দিতে গিয়ে ডাকাতদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে বশিরগাঁও গ্রামের বাড়ির গৃহকর্তাসহ ৬ জন মারাত্মক ভাবে আহত হয়। এ ঘটনায় বাড়ির গৃহকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম ও মো. শরীফ মিয়া বাদি হয়ে মঙ্গলবার বিকেলে পৃথকভাবে সোনারগাঁ থানায় ২টি অভিযোগ দায়ের করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বশিরগাঁও গ্রামের মো. জাহাঙ্গীর আলম বাড়িতে গরু পালন করে ও রিকসা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিল। তার ছেলে সাব্বির আহম্মেদ রূপগঞ্জের গাউছিয়ায় বাস কাউন্টারে চাকুরী করেন। সাব্বির তার স্ত্রীকে নিয়ে গাউছিয়ায় বসবাস করে। জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী গত কয়েকদিন ধরে অসুস্থ থাকায় তার ছেলে ও ছেলের বউ বশিরগাঁও গ্রামে তাদের বাড়িতে গত সোমবার তার স্ত্রীকে দেখতে আসেন। সোমবার দিবাগত রাতে বাড়ির সবাই খাওয়া দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়লে রাত দেড়টার দিকে ১০-১২ জনের মুখোশধারী ডাকাতদল সিমেন্টের পিলার দিয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে। এসময় বাড়ির সবাই ঘুম থেকে জেগে উঠলে সবাইকে হাত পা বেঁধে ছেনা ও রামদা দিয়ে জিম্মি করে ফেলে। পরে ডাকাতদল টাকা ও স্বর্ণলংকার দিতে বললে তাদের ডাকাতি কাজে বাঁধা দিলে ডাকাতরা বাড়ির গৃহর্কর্তা জাহাঙ্গীর আলম (৫৫), অসুস্থ গৃহকর্তী হাওয়া বেগম (৪৫), ছেলে সাব্বির আহমেদ (২০), ছেলের বউ লামিয়া আক্তার (১৮), মেয়ে ছানিয়া আক্তার (১৬) ও নাদিয়া আক্তার ( ১৫) কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে।

ডাকাতদল প্রায় ২ ভরি ওজনের স্বর্ণলংকার, ৪টি মোবাইল সেট, নগদ ১৬ হাজার টাকাসহ প্রায় আড়াই লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে বাড়ির সকলেই আহত অবস্থায় স্থানীয়ভাবে  চিকিৎসা নেয়।

অপরদিকে নোয়াগাঁও ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের শরীফ মিয়ার বাড়িতে একই সময় দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ডাকাত দল হানা দিয়ে চৌদ্দ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ৫ লাখ টাকাসহ ২০ লাখ টাকার মূল্যের মালপত্র লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় শরীফ মিয়া বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

সোনারগাঁ থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান পিপিএম বলেন, ডাকাতির ঘটনায় থানায় পৃথক ২টি অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। এব্যাপারে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা  নেয়া হবে।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়