সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
spot_img

প্রস্তাবিত মাদ্রাসার ১২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা আত্নসাৎ কারীদের বিরুদ্ধে স্মারকলিপি

সংবাদ সিক্সটিনঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় পিরোজপুর ইউনিয়নে অবস্থিত আষাড়িয়াচর গ্রামের মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে হাজী সারোয়ার ও হাজী মুক্তারের বিরুদ্ধে ওই গ্রামের প্রস্তাবিত মাদ্রসার ১২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা আত্নসাৎ করার অভিযোগ এনে টাকা উদ্ধারের জন্য স্থানীয় সাংসদ, উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

১২ ফেব্রুয়ারী সোমবার সকালে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের আষাড়িয়াচর গ্রামবাসীর সাক্ষরিত স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, বিগত ২০২১ সালের ৩ জানুয়ারি ওই এলাকায় প্রস্তাবিত মাদ্রাসা নির্মাণের স্বার্থে ওয়াজ-মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ওয়াজ-মাহফিলে মাদ্রাসা নির্মাণের জন্য এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষদের কাছ-থেকে নগদ এবং বাকিতে ১২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা কালেকশন করে উপরোল্লিখিত মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে (দুই ভাই) সারোয়ার ও মুক্তারকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে ১২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার কোন হিসেব না পেয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করে। এ নিয়ে ওই এলাকার মসজিদ কমিটির সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ একাধিকবার তাদের থেকে হিসেব চাইলে কোন কর্ণপাত করেনি।

কোন উপায়অন্তু না পেয়ে গত ২৬ জানুয়ারি রোজ শুক্রবার বাদ জুমা ওই এলাকার শতশত ধর্মপ্রাণ মুসল্লীগণ টাকা আত্নসাৎ-কারী হাজী সারোয়ার ও মুক্তারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন, বিক্ষোভসহ কুশপুত্তলিকা দাহ করে। এতেও তাদের টনক নড়েনি!

অবশেষে আজ ১২ ফেব্রুয়ারী সোমবার টাকা আত্নসাৎ-কারী ওই দুই সহোদরের বিরুদ্ধে উপজেলা ইউএনও আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ, নারায়ণগঞ্জ-৩ সোনারগাঁয়ের সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সামসুল ইসলাম ভূইয়া ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম’র বরাবর টাকা উদ্ধারের জন্য স্মারকলিপি প্রদান করে।

এলাকাবাসীর দাবী প্রস্তাবিত মাদ্রাসার টাকার হিসেব-সহ মাদ্রাসা নির্মাণের জন্য টাকা ফেরত দিতে হবে, অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আরো কঠিন পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে বলেও জানান এলাকার ধর্মপ্রাণ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও সাধারণ জনগণ।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়