শনিবার, মার্চ ২, ২০২৪
spot_img

সোনারগাঁয়ে নৌকার প্রার্থীসহ ১০ চেয়ারম্যানকে শোকজ

সংবাদ সিক্সটিনঃ নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও ৯ ইউপি চেয়ারম্যানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে বিচারকদের নিয়ে গঠিত নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটি৷

২০ ডিসেম্বর বুধবার আসনটিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটির সভাপতি জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সিনিয়র সহকারী জজ মোহসিনা ইসলাম নোটিশটি ইস্যু করেন৷

কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে সোনারগাঁ উপজেলা চেয়ারম্যান সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, ভাইস-চেয়ারম্যান বাবুল হোসেন, পিরোজপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান মাসুম, বৈদ্দ্যেরবাজার ইউপি চেয়ারম্যান আলামিন সরকার, সনমান্দি ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ, সাদিপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ মোল্লা, কাঁচপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, জামপুর ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির ভূঁইয়া, বারদী ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান ও মোগরাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ৷

নৌকার প্রার্থীকে পাঠানো নোটিশে বলা হয়, গত ১৯ ডিসেম্বর তিনি শতাধিক মোটর-সাইকেলসহ হাজারো নেতা-কর্মী নিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মিছিল করেন, যা যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটায়৷ প্রার্থীর এ আচরণ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আচরণবিধির ৬(ঘ) ও ৮(ক) সুস্পষ্ট লঙ্ঘন৷ গণমাধ্যমের সংবাদেও বিষয়টি প্রকাশিত হয়েছে৷

চেয়ারম্যানদের নোটিশে বলা হয়েছে, তারা সরকারি গাড়ি নিয়ে জ্বালানি পুড়িয়ে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন৷ জাতীয় পার্টির প্রার্থীর নির্বাচন সমন্বয়কারী হাফেজ মাহমুদুল আনোয়ার এ সংক্রান্ত বিষয়ে অনুসন্ধান কমিটির কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে৷ এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে চেয়ারম্যানদের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে বলে নোটিশে উল্লেখ রয়েছে৷

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত বলেন, দীর্ঘদিন এই আসনটিতে নৌকার প্রার্থী ছিল না। এবার প্রার্থী পেয়ে আনন্দিত হয়ে দলীয় নেতাকর্মীরা মিছিল করেছেন। মূলত মিছিলটি ছিল দলের কেন্দ্রীয় আনন্দ মিছিল কর্মসূচির অংশ হিসেবে৷ আমরা সরাসরি মহাসড়কে ছিলাম না, ডাইভারশন রোডের ওপর ছিলাম। আমরা কোনো যানজট তৈরি করিনি।

যোগাযোগ করা হলে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, তিনি সরকারি গাড়ি ব্যবহার করেননি৷ অপর দুই ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের নামে সরকারি গাড়ি বরাদ্দ থাকে না৷ সুতরাং সরকারি গাড়ি ব্যবহার করার কোন সুযোগ নেই৷

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়