শনিবার, মার্চ ২, ২০২৪
spot_img

নির্বাচন প্রত্যাহারের চিঠি টাইপ করে ফেলেছে জাতীয় পার্টি

সংবাদ সিক্সটিনঃ আওয়ামী লীগের সঙ্গে আসন নিয়ে জাতীয় পার্টির কোনো সমঝোতা এখনো হয়নি বলে জানিয়েছেন জাপার একাধিক শীর্ষনেতা। আজ রবিবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন হলেও এখন পর্যন্ত কোন কোন আসনে নৌকা প্রত্যাহার হবে তা নিশ্চিত নন দলটির নেতারা। এদিকে গতকাল রাতে আসন সমঝোতা নিয়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জাপার বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। সার্বিক বিষয়ে গতকাল সন্ধ্যা থেকে জাপার সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদের গুলশান বাসভবনে বৈঠক করেন দলটির শীর্ষনেতারা।

বৈঠকে পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু, কো-চেয়ারম্যান এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, কাজী ফিরোজ রশিদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সালমা ইসলাম, প্রেসিডিয়াম সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা, মীর আবদুস সবুর আসুদ, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, মোস্তফা আল মাহমুদ, জহিরুল ইসলাম জহির, জহিরুল আলম রুবেলসহ সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক সূত্র থেকে জানা গেছে, সমঝোতা শুরুতে আওয়ামী লীগ যতটি আসনে ছাড় দেওয়ার কথা বলেছিল শেষ মুহূর্তে তারা কথা রাখেনি। বৈঠকে সবার উপস্থিতিতে জাপা মহাসচিব কথা বলেন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে। চুন্নু জাতীয় পার্টির বিক্ষুব্ধ নেতাদের বক্তব্য তুলে ধরে ওবায়দুল কাদেরের কাছে নিজের অসহায়ত্ব প্রকাশ করেন। জবাবে বিষয়টি দ্রুত আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানান ওবায়দুল কাদের। বৈঠকে উপস্থিত এক নেতা জানান, জাতীয় পার্টি ইতোমধ্যে নির্বাচন প্রত্যাহারের চিঠি টাইপ করে রেখেছে। গতকাল রাত ১২টা পর্যন্ত আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আসন সংখ্যা নিয়ে পরিষ্কার না হওয়ায় আজ রবিবার সকালে প্রথমে প্রেসিডিয়াম সদস্য ও এমপিদের যৌথসভা ডাকার কথা রয়েছে। এর পরই সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বয়কটের ঘোষণার কথা জানানো হবে।

জাপার এক এমপি জানান, সরকার নির্দিষ্ট আসনে নৌকা নিষ্ক্রিয় করার কথা বলছেন। এগুলো পাগলের প্রলাপ। প্রশাসন কোনো অবস্থাতেই নৌকাকে বাদ দিয়ে লাঙ্গলকে সমর্থন দেবে না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ এর আগেও আসন নিয়ে আমাদের সঙ্গে কথা রাখেনি। শেষ মুহূর্তে এসে আমাদের বেকায়দায় ফালায়।তার জন্য রাতে সব সিনিয়র নেতারা বৈঠকে বসেন। এদিকে জাপার বনানী কার্যালয় সূত্র জানায়, নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করেছে জাপার নেতা-কর্মীরা। বিক্ষোভ চলাকালে পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের এবং মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু কার্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ প্রতিদিন

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়