শনিবার, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
spot_img

আমরা যতদিন আছি কোন শক্তির ক্ষমতা নাই: শামীম ওসমান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, বাংলাদেশের কথা জানিনা কিন্তু নারায়ণগঞ্জে আমরা যতদিন আছি কোন শক্তির ক্ষমতা নাই ইনশাল্লাহ। নারায়ণগঞ্জে যতদিন জীবিত আছি সাম্প্রদায়িক কিছু ঘটাবে এই শক্তি কারো নাই। আপনারা কোনদিন ভাববেন না যে আমি কোন সম্প্রদায়ের। সব সময় ভাববেন আপনি এদেশের নাগরিক, আপনি বাঙালি। এটা বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ শেখ হাসিনার বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) রাতে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সার্বিক তত্ত্বাবধানে শহরের ৩নং বিআইডব্লিউটিএর ঘাটে প্রতিমা বিসর্জন অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমার কাছে একটা কথা শুনতে ভালো লাগে না হিন্দু সম্প্রদায়, সনাতন সম্প্রদায়। আমাদের পূর্বপুরুষরা স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় স্লোগান দিয়েছিল বীর বাঙালি অস্ত্র ধরো বাংলাদেশ স্বাধীন কর। তুমি কে আমি কে বাঙালি বাঙালি, তোমার আমার ঠিকানা পদ্মা মেঘনা যমুনা।আজকে আমরা আবারও স্বাধীনতার যুদ্ধের ৫২ বছর পরে স্লোগান ধরেছি বীর বাঙালি ঐক্য কর বাংলাদেশ রক্ষা কর।

শামীম ওসমান বলেন, আজকে এখানে আমি রিক্সায় চড়ে এসেছি। রিক্সায় চলে দেখি কেমন লাগে। আমি দেখলাম পথে হাজার হাজার মহিলা রাস্তার দু’পাশে বসে আছেন। তারা সবাই আমাকে দেখে হাত নাড়ছে। সবার মাঝে আমি অনেক আনন্দ দেখলাম। এই আনন্দটাকে নষ্ট করার জন্য একটা মহল মাঠে নেমে গেছে অলরেডি। এবং এই মহলটা চেষ্টা করবে কিছুদিনের মধ্যে আমাদের মানচিত্রে থাবা দিতে।

তিনি বলেন, আজকে যে আমরা সম্প্রীতি দেখলাম মাথায় কাপড় দিয়ে মাথায় সিঁদুর দিয়ে হাত নাড়ছেন, ফুলের শুভেচ্ছা দিয়েছেন, এই জিনিসটা নষ্ট করতে একটা শ্রেণি মাঠে নেমে গেছে। আজকে আপনাদের এই দুর্গা মায়ের বিসর্জনের দিন আমি আপনাদের কাছে দোয়া ও আশীর্বাদ চাচ্ছি শেখ হাসিনার জন্য। দেশ স্বাধীনের সময় যুদ্ধের সময় কে হিন্দু কে মুসলমান তা দেখেনি বাঙালি। সাম্প্রদায়িকতা দিয়ে বাংলাদেশকে কেউ বিভক্ত করতে পারবে না।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক শংকর কুমার দে’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শিখণ সরকার শিপনের সঞ্চালনায় শারদীয় দূর্গোৎসবের বিজয়া দশমী অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, সহ-সভাপতি রবিউল হোসেন, নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল, নারায়ণগঞ্জ নৌ পুলিশের এসপি মিনা মাহমুদা, নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ) চাউলাউ মারমা, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিষ্ণুপদ সাহা, সহ- সভাপতি সাংবাদিক উত্তম কুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক সুশীল দাপ, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রদীপ কুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক রঞ্জিত মন্ডল, বাংলাদেশ ইয়ার্ন মার্চেন্টের সভাপতি লিটন সাহা, চাষাঢ়া রামকৃষ্ণ মিশন আশ্রমের অধ্যক্ষ স্বামী একনাথানন্দ, দেওভোগ নাগমহাশয় মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক তারাপদ আচার্য্য, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষ্ণ আচার্য, বন্দর থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল বিশ্বাস, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা কমিটির সভাপতি শিশির ঘোষ অমরসহ প্রশাসন ও পূজা পরিষদের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়