মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
spot_img

চেক এবং স্ট্যাম্প উদ্ধারের জন্য মিথ্যে মামলা, হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

সাকিব হোসেইন, কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার দাউদকান্দিতে চেক আর স্ট্যাম্প জামানতের মাধ্যমে জমি বিক্রির সম্পূর্ণ টাকা পরিশোধ না করে রেজিষ্ট্রি নিয়ে অতঃপর বিক্রেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে একটি অসাধু সিন্ডিকেটের মূল হোতা মোঃ ইকরাম হোসেন। এমন অভিযোগ তুলে প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী মোঃ হানিফ সরকার।

বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২ টায় হানিফ সরকার তার নিজ বাড়ি উপজেলার গৌরিপুর এলাকার আঙ্গাউড়া গ্রামে এ সংবাদ সম্মেলন করেন। জানা যায়, ঘটনায় অভিযুক্ত মৃত নাজিম উদ্দিন এর ছেলে মোঃ ইকরাম হোসেন উপজেলার গৌরিপুর এলাকার বাসিন্দা।

সংবাদ সম্মেলনে প্রতিবাদ জানিয়ে ভুক্তভোগী মো: হানিফ সরকার বলেন, আমি গৌরীপুর নিবাসী ইকরাম হোসেনের কাছে ২ বছর আগে ৩৮ শতক জমি বিক্রি করি ৩ কোটি ৮০ লক্ষ টাকায়। এবং ৩৮ শতক জমিই ইকরাম হোসেনের নামে রেজিস্ট্রি করে দিয়েছি। এর মধ্যে ইকরাম আমাকে ২ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা নগদ পরিশোধ করে এবং বাকী ১ কোটি ৬৫ লক্ষ টাকার লিখিত স্ট্যাম্প এবং (২২/১২/২০২৭ইং) তারিখের একটি চেক জামানত হিসেবে প্রদান করে। কিন্ত পরবর্তীতে ইকরাম হোসেন উদ্দেশ্যমূলকভাবে চেক ও স্ট্যাম্প ফেরতের দাবীতে বিভিন্নভাবে আমাকে চাপ প্রয়োগ করে। এক পর্যায়ে চেক ও স্ট্যাম্প উদ্ধারের জন্য আমার বিরুদ্বে মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দায়ের করে ইকরাম হোসেন।

হানিফ সরকার তাঁর অভিযোগে আরও বলেন, ইকরাম চেক ও স্ট্যাম্পের জন্য হুমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে আমাকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করছে। তার একটি অসাধু সিন্ডিকেট রয়েছে। যার মূল হোতা ইকরাম হোসেন। তার ভয়ে পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় আছেন বলেও জানান হানিফ সরকার। তিনি বিষয়টি প্রতিকারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা ও প্রশাসনের উচ্চপদস্ত কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন বলে জানান।

এবিষয়ে অভিযুক্ত ইকরাম হোসেনের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি কল না ধরায় বক্তব্যে নেওয়া সম্ভব হয়নি।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়