মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
spot_img

সোনারগাঁ আওয়ামীলীগে প্রতিহিংসার ঝর, দীপক কুমার বণিকের আবেগঘন স্ট্যাটাস

সংবাদ১৬.কমঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগে চলছে প্রতিহিংসার ঝর। আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগ ততোই প্রতিহিংসার চরমে পৌঁছে যাচ্ছে।

প্রমাণ স্বরূপ দলীয় এবং বিভিন্ন জাতীয় প্রোগ্রামে নেতাদের ভিন্ন-ভিন্ন স্টেজ তৈরি এবং একে অপরের উপর প্রতিহিংসামূলক বক্তব্যই যথেষ্ট, যা ইতোমধ্যে রাজনৈতিক বিশ্লেষকসহ সাধারণ ভোটারদের মাঝে সমালোচিত।

প্রতিহিংসার ধারাবাহিকতাকে বজায় রাখতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির সদস্য ও কে আই বি ঢাকার সাংগঠনিক সম্পাদক দীপক কুমার বণিক দীপুর ছবি সম্বলিত সোনারগাঁ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সাটানো ব্যানার-ফেস্টুন ছিড়ে মাটিতে ফেলে রেখেছে। যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সমালোচনার ঝর বইছে।

এবিষয়ে ভারাক্রান্ত মননে নিজের ফেসবুক আইডিতে আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন সোনারগাঁ উপজেলা থেকে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী এই নেতা! যা হুবহু তুলে ধরা হলো।–

“এ ধরনের জঘন্য কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানাই।

আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন কর্মী। নৌকাকে ধারণ করি মননে, দলপ্রান লোক হিসাবে কাজ করছি নৌকার ভোট বাড়াতে।

দলের মধ্যে মনোনয়ন নিয়ে প্রতিযোগিতা থাকতেই পারে। সে প্রতিযোগিতা হবে কে কত বেশি নৌকার ভোটার বাড়াতে পারে। কে কত ভালো কাজ করে মানুষের মন জয় করতে পারে, কে কত বেশি মানুষের কাছে যেতে পারে।

প্রতিযোগিতা হবে সুস্থ ধারার। অসুস্থ, নোংরা মানসিকতার প্রতিযোগিতা আমাদের সকলকেই পরিহার করতে হবে।

আমি আজ পর্যন্ত আমার কোন রাজনৈতিক বক্তব্যে আমার কোন সহ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের বিরুদ্ধে কখনোই বিরুদ্ধাচারণ করিনি।

কারণ আমি বিশ্বাস করি, আমি ছাড়া অন্য কাউকে যদি দল মনোনয়ন দেয়, আমার পছন্দ না হলেও, একজন দলীয় কর্মী হিসেবে আমার দলের পক্ষে, নৌকার পক্ষে, সেই প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে হবে মন থেকে।

আমি বিশ্বাস করি, যারা দল করে, তাদের প্রত্যেকেরই দলীয় মনোনয়ন চাওয়ার অধিকার আছে। কিন্তু দল থেকে তো মনোনয়ন দেওয়া হবে একজনকে, সকলকেই মনোনয়ন দেওয়া সম্ভব নয়।

যারা সত্যিকার আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে, যারা ব্যক্তিগত রাজনীতি করে না, তারা প্রত্যেকেই দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করবে।

আমি বিশ্বাস করি, এ ধরনের জঘন্য কাজ আওয়ামী লীগের কোন নেতা বা কর্মী করতে পারে না।  যারা দলে অনুপ্রবেশ কারী, যারা ব্যক্তিলীগ এর কর্মী, তারা করতে পারে।

সংশ্লিষ্ট সকলকে ধৈর্য ধরার আহবান জানাই, উগ্রতার জয় ক্ষনিকের, ধৈর্যের জয় দীর্ঘস্থায়ী।

৩ সেপ্টেম্বরে আওয়ামী লীগের সম্মেলনে আমার আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের উপর যে নির্মম অত্যাচার করা হয়েছে, যেভাবে হাজারো নেতাকর্মীদের অপমান করা হয়েছে, মনের সেই দাগ এখনো শুকায়নি।

দলপ্রান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে না দাড়ানো আহবান জানাই।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যের বিকল্প নেই। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে হারাতে পারে এমন শক্তি বাংলাদেশে নেই।

সকলের শুভবুদ্ধির উদয় হউক।

আমরা নৌকার লোক, আসুন নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে সকলে একসাথে কাজ করি”।

এবিষয়ে জানতে চাইলে আবেগে আপ্লূত হয়ে দীপক কুমার বণিক দীপু সংবাদ সিক্সটিনকে বলেন, রাজনীতিতে প্রতিযোগিতা থাকবে এটাই স্বাভাবিক, কিন্তু প্রতিহিংসা কেন? আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, আমাদের মাঝে যদি প্রতিহিংসা কাজ করে তাহলে কিভাবে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করবো? কিভাবেই বা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনারবাংলা গড়বো?

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়