সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪
spot_img

ষড়যন্ত্র রুখতে শেখ হাসিনা আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন: দোলন

আলফাডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশকে নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে, মন্তব্য করে কৃষক লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও ঢাকা টাইমস সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলন বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের সময়েও ষড়যন্ত্র হয়েছিল, এখনও হচ্ছে। ষড়যন্ত্র রুখে দিতে আগামীতে আবারও শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করা হবে। ঐক্যবদ্ধ হয়ে তার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের দিন মঙ্গলবার ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দোলন।

জাতীয় শোক দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে আরিফুর রহমান দোলন বলেন, আজকে বাঙালি জাতির শোকের দিন, বক্তৃতা দেওয়ার দিন নয়। যিনি স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম দিয়েছেন, নেতৃত্ব দিয়েছেন, সেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে বেদনার সঙ্গে স্মরণের দিন।

পঁচাত্তরের এই দিনে নির্মমভাবে তাঁকে, তাঁর পরিবারের প্রায় সকল সদস্য এবং বঙ্গবন্ধুর অনেক সহযোদ্ধা, সহকর্মী, আত্মীয়স্বজন এবং শুভাকাঙ্ক্ষিদের ঘাতকেরা নির্মমভাবে হত্যা করে। ১৫ আগস্টে শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা, সম্মান জানাই।

ঢাকা টাইমস সম্পাদক বলেন, ‘ঘাতকেরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করল সেই বাড়িতে, যেখানে বসে তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। সেই বাড়িতে বঙ্গবন্ধুর শরীরের রক্ত সিঁড়ি বেয়ে মিশেছিল যে মাটিতে, সেই মাটির মানুষকে, সেই দেশকে তিনি গভীরভাবে ভালোবাসতেন। বঙ্গবন্ধুর এই ভালোবাসা আমাদের জন্য অনেক শক্তি, সাহস এবং অনুপ্রেরণা।

বঙ্গবন্ধুর সমস্ত স্বপ্ন ছিল এই জাতিকে ঘিরে। সেই অসমাপ্ত স্বপ্ন পূরণে তাঁরই সুযোগ্যকন্যা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। এর জন্য যা যা প্রয়োজন তিনি করছেন। আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাঁকে সহযোগিতা করার মাধ্যমে এই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পর স্মার্ট বাংলাদেশ গড়াই এখন শেখ হাসিনার লক্ষ্য উল্লেখ করে ফরিদপুর-১ আসনের জননেতা দোলন বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশকে স্মার্ট বাংলাদেশে পরিনত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে কাজ করছেন, আমাদেরকেও তাঁর সঙ্গী হতে হবে।

বাংলাদেশকে নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ষড়যন্ত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের সময়ও হয়েছিল। সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে শেখ হাসিনাকে আবারও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করতে হবে। ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাঁর পাশে থাকতে হবে। বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করতে হবে। তাহলেই বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ সুসম্পন্ন হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আলফাডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম আকরাম হোসেন। অন্যদের মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম সুজা, সহ-সভাপতি আশরাফ উদ্দিন তারা, ইকবাল হাসান চুন্নু, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা শেখ শওকত আহমেদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এস এম তৌকির আহমেদ ডালিম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এসময় আলফাডাঙ্গা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবদুর রউফ, দপ্তর সম্পাদক সেলিম রেজা, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক আবুল কাশেম, ফরিদপুর জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোনায়েম খান, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক কামরুল ইসলাম, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নূর ইসলাম, উপজেলা কৃষক লীগের সদস্য সচিব খান আমিরুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক নাজমুল ইসলাম রানা, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনোয়ারা সালাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি কামরুজ্জামান কদর উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান দোলন। উপজেলা আওয়ামী লীগ, কৃষক লীগ ও কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরে তিনি উপজেলা প্রশাসন ও আওয়ামী লীগের শোক র‍্যালিতে অংশ নেন।

তিনি বেগম শাহানারা একাডেমীতে শিশুদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনের ওপর আলোচনা, কবিতা আবৃত্তি, চিত্রাংকন, বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানেও যোগ দেন।

এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষপ্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফারুক আহমেদ। এসময় গোপালপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন আহমেদ, আফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি সেকেন্দার আলম, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবির, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম, দপ্তর সম্পাদক মিয়া রাকিবুল, গোপালপুর ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি নুর আলম, গোপালপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক হোসেন মিয়া  উপস্থিত ছিলেন।

কামারগ্রাম কাঞ্চন একাডেমীতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক-শিক্ষার্থী, অভিভাববৃন্দ ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনের ওপর আলোচনা করেন তিনি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন।

ওই অনুষ্ঠানের পরই দোলন যোগ দেন আলফাডাঙ্গা আদর্শ ডিগ্রি কলেজের শোক দিবসের আলোচনা সভায়। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমএম মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সহযোগী অধ্যাপক সৈয়দ মেহেদী হাসান, রবিউল ইসলাম, প্রভাষক রীনা মজুমদার, একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমাইয়া ইসলাম মীম প্রমুখ।

সেখান থেকে দোলন উপস্থিত হন আলফাডাঙ্গা আওয়ামী লীগ আয়োজিত দোয়া মাহফিল ও তবাররক বিতরণ অনুষ্ঠানে। পরে তিনি বোয়ালমারী উপজেলার চতুল ইউনিয়নের বাইখির চৌরাস্তায় আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের আয়োজনে শোক দিবসের আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।

এতে সভাপতিত্ব করেন, বাইখির ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর শেখ। এসময় বক্তব্য দেন, ফরিদপুর জেলা কৃষক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. লিটন মৃধা, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগ নেতা শেখ শওকত আহমেদ, ফরিদপুর জেলা পরিষদের সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা আহসান হাবীব সিকদার (হাসান সিকদার) প্রমুখ।বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেত্ববৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

পরে সন্ধ্যায় আলফাডাঙ্গা উপজেলার বুড়াইচ ইউনিয়নের বারাংকুলা আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন দোলন। অনুষ্ঠানে ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আবু বক্কার সিদ্দিক সভাপতিত্ব করেন।

এসময় পাচুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান এস এম মিজানুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আলীম খান, উপজেলা কৃষক লীগের যুগ্ম আহবায়ক ইয়াসিন মাস্টার, বুড়াইচ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসিপ মাহমুদ শাহীন, সহ-সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য মো. সিরাজুল ইসলাম, বুড়াইচ ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি মো. জাকির হোসেন, বুড়াইচ ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি মো. এস্কেন্দার মিয়া, ইউপি সদস্য মো. মিলন হোসেন প্রমুখ।

আরো দেখুন
Advertisment
বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে জনপ্রিয়