বুধবার, মার্চ ২২, ২০২৩
spot_img

বীরমুক্তিযোদ্ধার বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট, আহত ৭

আড়াইহাজার প্রতিনিধিঃ আড়াইহাজারে বীরমুক্তিযোদ্ধার বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার রাতে উপজেলা সদর পৌরসভার মুকুন্দী গ্রামে বীরমুক্তিযোদ্ধা লাল মিয়ার বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।
হামলায় বীরমুক্তিযোদ্ধার ছেলে নুর হোসেন (২৬), দুই পুত্রবধু নিলুফা ( ২৫) ও রিতা (২০), নাতী অপূর্ব (১২), স্ত্রী নাসরিন আক্তার (৫০) , নাতী আনাছ (৯) আহত হয়। এ সময় ২ বছরের ছোট শিশু আয়াছকে আছাড় দিয়ে আহত করে ব্যাপক লুটপাট ও ভাংচুর করা হয়।

জানা গেছে, বুধবার রাত পোনে ৭টায় উপজেলার মুকুন্দী সবুজের কাচাঁমালের দোকানে কলা বিক্রয় নিয়ে বীরমুক্তিযোদ্ধা লাল মিয়ার ছেলে নুর হোসেনের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় সবুজ তার সহযোগি নিয়ে নুর হোসেনকে ইট দিয়ে মাথায়সহ বেধড়ক মারধর করে। ঘটনার সময় নুর হোসেন তাদের হাত থেকে বাচঁতে দৌড়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। কিছুক্ষণ পর সবুজের নেতৃত্বে দোকান থেকে আধাঁ কিলোমিটার দুরে গিয়ে ২০/৩০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বীরমুক্তিযোদ্ধা লাল মিয়ার বাড়ীতে হামলা চালায়। নারী ও শিশুদের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। এতে হামলা চালিয়ে ৭জনকে আহত করে এবং ৩ লাখ ৮১ হাজার টাকা ও স্বর্নালংকার লুট করে বীরদর্পে পালিয়ে যায়। পরে টিনের বেড়া কুপিয়ে ভাংচুর করে। আহতদের আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

বীরমুক্তিযোদ্ধা লাল মিয়া অভিযোগ করে বলেন, কলা বিক্রির বিষয়টি কিছুই না। পূর্ব শুক্রতার জের ধরে অযথা আমার বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুর করেছে। আমি মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিকট আমার নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তা চাই। আড়াইহাজার থানার ওসি আজিজুল হক হাওলাদার জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জনপ্রিয় সংবাদ