ঢাকাবুধবার , ৯ নভেম্বর ২০২২
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলা-ধুলা
  6. গল্প কবিতা
  7. জাতীয়
  8. তথ্য প্রযুক্তি
  9. দুর্ঘটনা
  10. ধর্ম
  11. পরিবেশ
  12. ফিচার
  13. বিনোদন
  14. বিশেষ সংবাদ
  15. মতামত

শিক্ষার্থী ও অবিভাবক হামলায় আহত ৪ শিক্ষক, স্কুলের দরজা জানালা ও কম্পিউটার ভাংচুর

সংবাদ১৬.কম
নভেম্বর ৯, ২০২২ ১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সংবাদ১৬.কমঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের হামলায় ৪ শিক্ষক ও একজন ছাত্র আহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার বারদি স্কুল এন্ড কলেজে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এসময় হামলাকারী ও অভিভাবকরা একত্রিত হয়ে স্কুলের দরজা, জানালা, কম্পিউটার ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এ ঘটনায় বারদি স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক একেএম রেজওয়ানুল হক বাদি হয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

জানা যায়, উপজেলার বারদি স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্র বাগেরপাড়া গ্রামের তাইজুল ইসলামের ছেলে তানজিমের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধিরে হামলাকারী আরাফাতের পারিবারিক বিরোধ চলছিল। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে স্কুল চলাকালে আরাফাতের নেতৃত্বে রায়হান, সাইফুল ইসলাম, শ্রাবন, রিফাত, হাবিবুর রহমানসহ ৫-৭ জনের একটি দল লাঠিসোটা, বাঁশ, হকিস্টিক, কাঠের খন্ড ও দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তানজিমের উপর হামলা চালায়। এসময় তার ডাক চিৎকারে শিক্ষকরা ওই ছাত্রের সুরক্ষায় এগিয়ে এলে হামলাকারীরা ইংরেজি শিক্ষক একেএম রেজওয়ানুল হক, সহকারী শিক্ষক সুমন চক্রবর্তী, মতিউর রহমান ও মাহবুবুল ইসলামকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে তাদের অভিভাবক ও হামলাকারীরা একত্রিত হয়ে স্কুলের দরজা , জানালা, কম্পিউটার ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে। খবর পেয়ে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসতে থাকলে হামলাকারীরা শিক্ষকদের প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়।

আহত শিক্ষক একেএম রেজওয়ানুল হক জানান, স্কুলের আশপাশে কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত শুরু হয়েছে। প্রতিদিন কোন না কোন কারণে স্কুলের পাশে ছাত্রদের মধ্যে মারামারি হচ্ছেই। পারিবারিক বিরোধে ছাত্রদের মারধরের এক পর্যায়ে শিক্ষকরা এগিয়ে এলে আমিসহ ৪ শিক্ষক হামলার শিকার হই। এ বিষয়ে প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

বারদি স্কুল এন্ড কলেজের গর্ভণিং বডির সভাপতি ও রারদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লায়ন মাহবুবুর রহমান বাবুল জানান, হামলার ঘটনা শুনেছি। এ বিষয়ে প্রশাসনের সঙ্গে কথা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হবে।

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক তদন্ত মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ জানান, হামলার ঘটনায় অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।