ঢাকারবিবার , ৩০ অক্টোবর ২০২২
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলা-ধুলা
  6. গল্প কবিতা
  7. জাতীয়
  8. তথ্য প্রযুক্তি
  9. দুর্ঘটনা
  10. ধর্ম
  11. পরিবেশ
  12. ফিচার
  13. বিনোদন
  14. বিশেষ সংবাদ
  15. মতামত

পূর্ব-পাগলায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১১ ইউপি সদস্যর সংবাদ সম্মেলন

সংবাদ১৬.কম
অক্টোবর ৩০, ২০২২ ৭:৪৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার পূর্বপাগলা ইউনিয়ন পরিষদের ১১জন ইউপি সদস্যরা মিলে পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মাসুক মিয়ার স্বেচ্ছাচারিতা, লাইসেন্সকৃত পিস্তল দেখিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও অনিয়ম র্দূনীতির বিরুদ্ধে পরিষদের ১১ জন ইউপি সদস্য ও সদস্যাদের সংবাদ সম্মেলন ও উপজেলা নির্বাহী আফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

রবিবার বিকেল ৪ টায় ১১ জন ইউপি সদস্যদের আয়োজনে শান্তিগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন করেন।
সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউনিয়ন পরিষদের প্যানের চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন। তিনি লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন, নিবার্চিত হওয়ার ১০ মাসে ও পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মাসুক মিয়া পরিষদের সদস্যদের সাথে সরকারের বরাদ্দকৃত কোন প্রকল্প সমন্বয় ছাড়াই একক সিদ্ধান্তে পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা করে অনিময় দূর্নীতির মাধ্যমে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা।

গত ২০২১-২২ অর্থ বছরে অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচীর আওতায় ২য় পর্যায় সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কোহিনূর বেগম ৬নং পিআইসি কমিটির সভাপতি হিসেবে চিকারকান্দি আগার বাড়ির রাস্তা হতে বেড়িবাধেঁর মুখ পর্যন্ত ৩২ জন শ্রমিক দ্বারা মোট বরাদ্দকৃত ৫ লাখ ১২ হাজার টাকার মাটির কাজ সম্পন্ন করলেও চেয়ারম্যান মাসুক মিয়া একক ক্ষমতা বলে পিআইসি কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে না জানিয়ে শান্তিগঞ্জে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিসে গিয়ে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাধ করেন বলে অভিযোগ করা হয়।

প্রকল্পের সভাপতি ও পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কোহিনূর বেগম বিলের টাকার জন্য পরিষদের ১১জন সদস্যরা মিলে গত ২৩ অক্টোবর চেয়ারম্যান মোঃ মাসুক মিয়ার নিকট জানতে চাইলে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে সদস্যদের সাথে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে পরিষদ থেকে চলে যেতে হুমকি দামকী প্রদান করেন। এছাড়াও ২০২১-২২ অর্থবছরে এই ইউনিয়নের অসহায় মহিলাদের কর্মসংস্থানের জন্য জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ৮টি সেলাই মেশিন এবং ২০২২-২৩ অর্থবছরে ইউনিসেফ শান্তিগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে একটি নলকূপ ও ৫টি লেট্রিন বরাদ্দ দিলেও চেয়ারম্যান কোথায় কাকে দিয়েছেন সেই বিষয়টি পরিষদের কোন মেম্বারগন জানেন না। তাই নিরুপায় হয়ে আবারো চেয়ারম্যানের নিকট জানতে চাইলে চেয়ারম্যান ১১ জন ইউপি সদস্যদের সাথে অশালীন মন্থব্য করেন এবং পিস্তল বের করে ভয়ভীতি ও হুমকি দামকী দিয়ে পরিষদ থেকে বের করে দেন বলে অভিযোগ করেন। তারা গত ২৭ অক্টোবর ১১ জন সদস্য মিলে চেয়ারম্যানের অপসারনের দাবীতে শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
সংবাদ সম্মেলনে এই দূর্নীতিবাজ চেয়ারম্যান মাসুক মিয়ার অনিয়ম দূর্নীতি তদন্ত সাপেক্ষে তাকে অপসারনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট জোর দাবী জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. সাদেক মিয়া,ইউপি সদস্য মো. আমীর আলী,জাহাঙ্গীর আলম,মো. ছালিক আহমদ, রুপন মিয়া, মো. জাহিদুল ইসলাম, মো. ওমর ফারুক,মহিলা সদস্যা মোছা. কোহিনূর বেগম, ছুরতুন নেছা ও রওশন আরা প্রমুখ।

এ ব্যাপারে পূর্বপাগলা ইউপি চেয়ারম্যান মো. মাসুক মিয়ার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার বিরুদ্ধে আনীত অবিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে দাবী করেন।

শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আনোয়ারুজ্জামান জানান, বিষয়টি তদন্ত করে দেখবো। অনিময় দূর্নীতির সাথে চেয়ারম্যানের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।