ঢাকাবুধবার , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলা-ধুলা
  6. গল্প কবিতা
  7. জাতীয়
  8. তথ্য প্রযুক্তি
  9. দুর্ঘটনা
  10. ধর্ম
  11. পরিবেশ
  12. ফিচার
  13. বিনোদন
  14. বিশেষ সংবাদ
  15. মতামত

কিভাবে সম্পর্কে লয়্যাল থাকবেন

সংবাদ১৬.কম
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২ ৮:৪৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সংবাদ১৬.কমঃ একটি সফল সম্পর্কের ক্ষেত্রে অপরিহার্য বিষয় হচ্ছে সম্পর্ক বিশ্বাস, অনুগত, নিবেদিত ও লয়্যাল থাকা। যে সম্পর্কে দুজনের মধ্যে আনুগত্য রয়েছে সেখানে ইগো, ক্ষতি, দুঃখ বা রাগের স্থান নেই। সবাই চায় তার জীবনসঙ্গী যেন বিশ্বস্ত প্রকৃতির হয়। তবে আপনি কিভাবে বুঝবেন আপনার সঙ্গী আদৌ লয়্যাল বা বিশ্বস্ত কি না?

কোনো গসিপিং নেই: অনেকেই সঙ্গীর আড়ালে অন্যের কাছে নানা বিষয়ে গসিপিং করেন, যা মজার ছলেও করা ঠিক নয়। তবে আপনার সঙ্গী যদি লয়্যাল প্রকৃতির হয় তাহলে কখনো তিনি অন্যের কাছে নিজের সঙ্গীর বিষয়ে কটূ কথা বলবেন না। যত কষ্টই হোক কারো কাছেই আপনার দোষত্রুটি বলবেনা!

যত্নশীল: সঙ্গী আপনার প্রতি অনুগত কিনা তা আপনি টের পাবেন তার কেয়ারিং স্বভাবের গুণেই। লয়্যাল পার্টনাররা সব সময় সঙ্গীর প্রতি যত্নবান হন।

সম্মান করা: দাম্পত্যে একে অপরকে সম্মান করার বিষয়টি অনেকেই মনে রাখেন না। তবে সম্পর্ক সুখের করতে দুজনের প্রতি সম্মান থাকা জরুরি। সঙ্গী আপনার প্রতি লয়্যাল কি না তা আপনি আরও বুঝতে পারবেন আপনার প্রতি তার সম্মান আছে কি না তা যাচাই করে।

বুঝাপড়া ও বিশ্বাস: সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী করতে দুজনের মধ্যে বোঝাপড়া ও বিশ্বাস রক্ষা করা খুবই জরুরি। একে অপরের প্রতি বিশ্বাসই সঙ্গীর আনুগত্যের প্রমাণ দেয়।

দূরত্ব: আমাদের দেশ রেমিট্যান্স’র উপর বেশি নির্ভরশীল। সংসার ছেড়ে নয় অনেকই জীবনের তাগিদে দূরে থাকতে হয়। অথবা যে কোন কারনে সঙ্গী দূরে থাকলেও এটা কখনো মনে করা যাবেনা যে, আপনার প্রতি সঙ্গীর ভালবাসা নেই।

ধৈর্য ধারণ করা: ধৈর্য সম্পর্কের ভীতকে আরও মজবুত করে ও সংসারের শান্তি বজায় রাখে। একসঙ্গে দুজন মানুষ সংসার শুরু করলে অবশ্যই ধৈর্য্য ধারণ করতে হয় বিভিন্ন বিষয়ে। এই গুণও কিন্তু আপনার লয়্যাল থাকার পরিচয় দেয়।

কীভাবে একটি সম্পর্কে লয়্যাল থাকবেন?

একে অপরের কাছে কিছু গোপন না রাখা, আপনার ও সঙ্গীর মধ্যকার পার্থক্য বোঝা, সঙ্গীর জীবনে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়কে অগ্রাধিকার দেওয়া, ক্ষমাশীল হওয়া, একে অপরের বিরুদ্ধে কোনো ক্ষোভ না রাখা ইত্যাদি বিষয় মাথায় রাখা জরুরি।